জাতীয় পার্টি যেদিকে যায়, দেশের রাজনীতিও সেদিকে যায়: জিএম কাদের

sangbadbd24 sangbadbd24

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০২০
সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টি যেদিকে যায়, দেশের রাজনীতিও সেদিকে যায়। আগামীতে জাতীয় পার্টির সামনে উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করছে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ থেকে দলকে এগিয়ে নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, মনে রাখতে হবে ‘লিডার ইজ নেভার রঙ, লিডার ইজ অলওয়েজ কারেক্ট’। সবার মতামত নিয়ে কাজ করব। তবে দেশ ও দলের স্বার্থে কিছু কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি নেতাকর্মীদের এ কথা স্মরণ করিয়ে দেন।

জিএম কাদের বলেন, নেতৃত্বের প্রতি অবিচল থাকতে হবে। নিজেদের শক্তিশালী করা হবে আমাদের আগামী দিনের রাজনীতি। জনগণ কী চায়, সে অনুযায়ী কাজ করতে হবে। যেখানে প্রতিবাদ কিংবা দাবির প্রয়োজন হবে, সেখানে সেভাবে কাজ করবেন। আমরা কেন্দ্রীয়ভাবেও সেভাবে কর্মসূচি দেব। আমরা দেশবাসীর চিন্তা করছি। আমরা যদি সবাই এক থাকি, তাহলে সব সম্ভব। আর নেতৃত্বের প্রতি অবিচল থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ২৭ বছর ক্ষমতার বাইরে, এ সময়ে অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে যেতে হয়েছে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি কখনও এককভাবে, কখনও যৌথভাবে আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। আমরা কাউকে দোষ দেই না। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী হলে হামলার শিকার হতে পারে। আমাদের শক্তি অর্জন করতে হবে। জাতীয় পার্টি জন্ম থেকে আজ পর্যন্ত দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে।

জিএম কাদের বলেন, জাতীয় পার্টির নবজাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। জনগণ আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। আমরা যে আলোয় উদ্ভাসিত করব, সে আলোয় আলোকিত হবে দেশ। বক্তব্যের শুরুতে জিএম কাদের বলেন, মুজিব বর্ষের প্রতি স্বাগত জানাচ্ছি। ইতিহাস ও ঐতিহ্য আমাদের শিকড়, এটা ভুলে গেলে চলবে না।

জাতীয় পর্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বলেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য জাতীয় পার্টির জন্ম হয়েছিল। ১৯৮৪ সালে নির্বাচন দিয়ে ব্যারাকে ফিরে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেদিন রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচন বর্জন করায় গণতন্ত্রের জন্য জাতীয় পার্টির জন্ম। জাতীয় পার্টি শুধু গণতন্ত্রের পার্টি নয়, মানু্ষের ভাগ্য উন্নয়নের পার্টি। আমরা ক্ষমতায় যাব, যদি আমাদের মধ্যে শৃংখলা ও ঐক্য থাকে। আর যদি মানুষের কাছে যেতে পারি, মানুষ পরিবর্তন চায়।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান এমপি বলেন, ‘আগের দিনে সবকিছু ধুয়ে-মুছে নতুন করে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করতে চাই। পার্টিকে ক্ষমতায় নিতে চাই। সংগঠন শক্তিশালী না হলে দুই পয়সার দাম নেই আপনার। মনে রাখবেন, দুর্বলের সঙ্গে কেউ হাত মেলায় না।’

সভায় অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাতীয় পার্টির নবনির্বাচিত কো-চেয়ারম্যান ও জাতীয় মহিলা পার্টির সভানেত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপা, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা ও ঢাকা উত্তর জাতীয় পার্টির সভাপতি এসএম ফয়সল চিশতী।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি ইব্রাহিম খান জুয়েল